google-site-verification=-0qA71p_m4_ojRl3SU9bMTAkePfx1bUjpTMPTRND5hU
Home / news / USA Expatriate took responsibility for the education of 5th grade student Naeem

USA Expatriate took responsibility for the education of 5th grade student Naeem

বনানীর এফআর টাওয়ারে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে প্রাণ হারিয়েছেন ২৫ জন। হতাহতের শঙ্কা আরও বাড়তে পারত, যদি না উদ্ধারকারীরা তাৎক্ষণিক পদক্ষেপ না নিতো। এদিন ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদের সঙ্গে উদ্ধার অভিযানে অংশ নিয়েছিল অসংখ্য সাধারণ মানুষ, শিক্ষার্থী। আগুনের হাত থেকে মানুষ বাঁচানোর এ যুদ্ধ দেখে বসে চুপচাপ থাকতে পারেনি শিশু নাঈম ইসলাম। ছোট্ট হাত দুটো বাড়িয়ে দিয়েছিল বিপন্নদের সাহায্যে।

বৃহস্পতিবার (১৮ মার্চ) দুপুরের অগ্নিকাণ্ডের অসংখ্য ছবির মাঝে সবার নজর কেড়েছে একটি ছবি। সেখানে দেখা যায়, একটি ছোট্ট শিশু ফায়ার সার্ভিসের ফাটা পাইপ দিয়ে বের হয়ে যাওয়া পানি আটকে রাখার চেষ্টা করছে। শিশুটির চোখেমুখে চরম উদ্বেগ আর উৎকণ্ঠা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে ভাইরাল হয়েছে ছবিটি।

জানা যায়, শিশুটির নাম মো. নাঈম ইসলাম। কড়াইল বস্তিতে বাবা-মা ও এক বোনের সঙ্গে বসবাস তার। স্থানীয় আরবান স্ল্যাম আনন্দ স্কুলের পঞ্চম শ্রেণির ছাত্র সে।

নাঈম জানায়, তার বাবা রুহুল আমিন বনানীতে ডাব বিক্রি করেন। তাই আগুনের খবর শুনে বনানীতে ছুটে আসে সে। আসার পর ভিড় ঠেলে আগুন লাগা এফআর টাওয়ারের সামনে চলে আসে। এসে নিজ তাড়নাতেই ফায়ার সার্ভিসের পাইপ ধরে অন্যদের সঙ্গে সহযোগিতার চেষ্টা করে।

এরপর যখন ভবনের গ্লাস ভেঙে পড়ে তখন অন্যরা নাঈমকে দূরে সরিয়ে নেয়। গ্লাস ভাঙা একটু কমতেই নাঈম দেখে একটি পানির পাইপ ফেটে তা থেকে পানি বের হয়ে যাচ্ছে। তখন পাশ থেকেই একটি পলিথিন কুড়িয়ে তা দিয়ে পাইপের ফাটা অংশটি চেপে ধরে নাঈম।

সে বলে, আমি কোন ভয় পায়নি, ওই সময় আল্লার কাছে সবাই দোয়া করছিলো ভেতরের মানুষগুলা যেন বাঁচে। আমিও চাইছিলাম একটু সাহায্য করে যদি কাউকে বাঁচানো যায়।

ফেসবুকে তার ছবি দিয়ে প্রশংসা করা হচ্ছে জানালে লাজুক হাসি দিয়ে নাইম বলে, আমি শুনছি। আমারে অনেকে কইছে। বাসায় যাওয়ার পর তার নানী ও এলাকার অন্যরা সবাই তাকে বাহবা দিয়েছে। সবাই জড়িয়ে ধরেছে। নানী বলেছে, তোর ছবি দেখছি, ভালো কাজ করছিস!

বড় হয়ে কি হতে চাও-এ প্রশ্নে পাশে থাকা একজন পুলিশ পরিদর্শককে দেখিয়ে শিশু নাঈম বলে, আমি বড় হয়ে এই স্যারের মতো হইতে চাই। পুলিশ হইতে চাই। পুলিশ হইলে মানুষের সাহায্য করা যাইবো।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার (২৮ মার্চ) দুপুর ১২টা ৫৫ মিনিটে ২১-তলা বনানীর এফ আর টাওয়ারের ৯ তলায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। ফায়ার সার্ভিসের ২৫টি ইউনিট আগুন নেভানো ও হতাহতদের উদ্ধারের কাজ করে। পাশাপাশি সেনাবাহিনী, বিমানবাহিনী, নৌবাহিনী, পুলিশ, র‍্যাব, রেড ক্রিসেন্টসহ ফায়ার সার্ভিসের প্রশিক্ষিত অনেক স্বেচ্ছাসেবী কাজ করে। প্রায় সাড়ে ছয় ঘণ্টা চেষ্টার পর রাত ৭টায় আগুন নেভানো সম্ভব হয়। এই ঘটনায় এখন পর্যন্ত ২৫টি লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এছাড়া অর্ধশতাধিক মানুষ দগ্ধ ও আহত হয়ে রাজধানীর বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

 

নাঈমের পড়াশোনার দায়িত্ব নেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী ওমর ফারুক সামি

নাঈমকে পাঁচ হাজার ডলার ও পড়াশোনার দায়িত্ব নেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী ওমর ফারুক সামি। ঢাকার বনানীর কামাল আতাতুর্ক এভিনিউতে ফারুক-রূপায়ণ (এফ আর) টাওয়ারে অগ্নিকাণ্ডের পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে পাইপ ধরে রাখা এই নাইমের ছবি। অধিকাংশ মানুষ যেখানে ছবি তুলা ও দর্শকের মতো দেখতে ব্যস্ত ছিল সেখানে যেন ব্যতিক্রম শিশুটি। অনেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শিশুটির ছবি শেয়ার তার কাজের প্রশংসা করেছেন।

https://i1.wp.com/www.educationbangla.com/media/PhotoGallery/2019March/1445520190329130929.jpg?resize=615%2C333

এই শিশুর মানবিতা অন্যদের চেয়ে এগিয়ে। এবং তার কাজে খুশি হয়ে তাকে উপহার স্বরূপ পাঁচ হাজার ডলার প্রদানের ঘোষণা দিলেন যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী ওমর ফারুক সামি। পাশাপাশি তার যাবতীয় পড়ালেখার দায়িত্ব গ্রহণেরও কথা জানালেন তিনি।

সামি জানান, ‌`আমি নাঈমের কাজে খুবই খুশি হয়েছি। নাঈম খুব কষ্ট করে লেখাপড়া করছে, সে পুলিশ অফিসার হতে চায়। তার ইচ্ছেপূরণ করতে আজ থেকে তার পড়ালেখার দায়িত্ব নিচ্ছি। পর্যায়ক্রমে তার উপহারের পাঁচ হাজার ডলারও প্রদান করব।` এই বিষয়ে নাঈমের পরিবারের সঙ্গে ইতিমধ্যে আলাপ হয়েছে বলেও জানান এই যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী। সামির বাড়ি সিলেটের গোপালগঞ্জ উপজেলায়।

সূত্রেঃ এডুকেশন বাংলা

Check Also

Besides pension, everyone will get pension!

Not everyone will get pension even if they do not have jobs. Pensions are paid …

One comment

  1. Good day I am so thrilled I found your blog page, I really found
    you by mistake, while I was browsing on Askjeeve for something else, Anyhow
    I am here now and would just like to say
    many thanks for a remarkable post and a all round
    thrilling blog (I also love the theme/design), I don’t have time to look over it
    all at the minute but I have saved it and also included your RSS feeds, so when I have time I will be back to read a great deal more, Please do keep up the fantastic jo. https://www.reviewsbysid.com/lazer-bond-usa-reviews/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *